পাক অধিকৃত কাশ্মীরেও একই কাজ করেছিলো পাকিস্থান! তাই ইমরানের মুখে কালি.!

0
81

কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের মুখে চাপে পড়ে গিয়েছে পাক সরকার। তবু সরাসরি মুখ খুলতে পারছেন না সেখানকার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কিন্তু কেন? জানা যাচ্ছে, জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারার দুই এবং তিন নম্বর উপধারা এবং ৩৫’এ’ ধারা নিষ্ক্রিয়করণের অনেক আগেই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে একই কাজ করেছিল পাকিস্তান।

ঠিক এই জন্যই নাকি আন্তর্জাতিক মঞ্চে ইমরান খান আর্টিকলে ৩৭০ নিয়ে বিশেষ কিছু বলতে পারছেন না। অন্য কোনও দেশও পাকিস্তানের দাবি গুলিকে তেমন গুরুত্ব সহকারে দেখছে না। ব্যাতিক্রম মাত্র হাতেগোনা দু-একটি দেশ।

বেশ কিছু দিন আগে একটি বিশেষ পদ্ধতির মাধ্যমে ‘পাক অধিকৃত কাশ্মীরের’ গিলগিট-বালটিস্তানের অধিকার খর্ব করেছিল প্রতিবেশী মুলুকও। যা খুব বেশি পুরানো দিনের কথা নয়। সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছিল ২০১৮ সালের ২১ মে’তে। তখন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন শাহিদ খাকান আব্বাসি।

সেই সময় প্রতিবাদ করেছিল ভারত। তাতে বিন্দুমার পাত্তা দিতে নারাজ ছিল পাকিস্তান। এখন আবার আর্টিকলে ৩৭০ এবং ৩৫এ সম্পর্কে আন্তর্জাতিক মঞ্চে সমর্থন চাইছে পাকিস্তান। কিন্তু, ইমরান খান সরকার ঠিক সুবিধা করে উঠতে পারছে না। ঠিক ২০১৮ সালের গিলগিট-বালটিস্তানের ওই অর্ডার পাকিস্তানকে এখন রীতিমত অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে।

পরিস্থিতি প্রায় একই ছিল। শুধু সময় আর প্রেক্ষাপট হয়তো ভিন্ন। সেই সময় পাক প্রধানমন্ত্রী আব্বাসি ওই অর্ডারের মাধ্যমে গিলগিট-বালটিস্তানের অধিকার খর্ব করে দেশের কিছু মানবাধিকার সংস্থার ধিক্কারের মুখে পড়েছিলেন। কিন্তু, পাকিস্তানে মানবাধিকার সংস্থাগুলি সেনা ও আইএসআইয়ের দমননীতির ফলে মাথা তুলতে পারে না। সেক্ষেত্রে, ওই সময় তাদের চিৎকার কার্যত কোনও কাজেই লাগেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here